• India India
  • Date 27th January, 2023

24x7 Online News Portal in Bengali| News Hut

Copy By anandabazar patrika

রাজ্যের শিক্ষক নিয়োগে চরম ‘অনিয়ম’, বলছে সিএজি-র রিপোর্ট

রাজ্যের শিক্ষক নিয়োগে চরম ‘অনিয়ম’, বলছে সিএজি-র রিপোর্ট

By Dibyendu - 20th July, 2019

www.webhub.academy

রাজ্য স্কুল সার্ভিস কমিশনের সহকারী শিক্ষক, প্রধান শিক্ষক এবং অশিক্ষক কর্মচারী নিয়োগে চরম অস্বচ্ছতা হয়েছে বলে রিপোর্ট দাখিল করেছে কন্ট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল অব ইন্ডিয়া (সিএজি)। তাদের রিপোর্টে বলা হয়েছে, স্কুল সার্ভিস কমিশনের অনলাইন সিস্টেম নিরীক্ষা করে পরীক্ষার্থীদের নম্বর বাড়ানো-কমানো, যোগ্য প্রার্থীদের নাম তালিকা থেকে বাদ দিয়ে অযোগ্যদের নাম ঢোকানো, পরীক্ষা না-দিলেও নিয়োগপত্র দেওয়ার ভূরি ভূরি প্রমাণ মিলেছে। 

এই দুর্নীতি নজরে আসার পরেই ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে রাজ্য সরকারকে তদন্ত করতে বলেছিল সিএজি। কিন্তু তা হয়নি। এমনকি ২০১৮ সালের গোড়ায় সিএজি তার রিপোর্ট নবান্নে পাঠিয়ে দেওয়া সত্ত্বেও বিধানসভার সদ্যসমাপ্ত অধিবেশনের শেষ দিনে তা পেশ করা হয়েছে। সেই রিপোর্টে কমিশনের অজস্র অনিয়মের উল্লেখ করে সিএজি লিখেছে, সরকার এসএসসির বেআইনি কাজে নজর না দেওয়ায় হাজার হাজার পরীক্ষার্থী স্বচ্ছ ভাবে চাকরি পেতে ব্যর্থ হয়েছেন। 

২০০৯ থেকে ইন্টিগ্রেটেড অনলাইন এগজামিনেশন সিস্টেমের মাধ্যমে পরীক্ষা নেওয়া শুরু করে এসএসসি। ২০১৭-এর জানুয়ারি থেকে জুলাই পর্যন্ত এই সিস্টেমের উপর নিরীক্ষা চালিয়েছে সিএজি। তখন পর্যন্ত এসএসসি ১২টি পরীক্ষা নিয়েছিল। ১০টির ফল প্রকাশ করে নিয়োগও হয়ে গিয়েছিল। এর মধ্যে একটি পরীক্ষার সব নথি কমিশন দিতে না-পারায় সেটিকে নিরীক্ষার আওতায় আনেনি সিএজি। কিন্তু বাকি ১১টি পরীক্ষার নথি খতিয়ে দেখেই অনিয়ম ধরা পড়েছে। 

সিএজি তার রিপোর্টে লিখেছে, দ্বাদশতম পরীক্ষার পরে এসএসসি সমস্ত নথি ফলপ্রকাশের ছ’মাসের মধ্যে নষ্ট করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আগে যা তিন বছর ছিল। এমন সিদ্ধান্ত কোনও ভাবেই স্বচ্ছতার স্বার্থে নয়। তা ছাড়া, পরীক্ষার বিভিন্ন স্তরে এসএসসির পাঁচটি আঞ্চলিক অফিস থেকে ওএমআর শিট-সহ সমস্ত নথি কেন্দ্রীয় অফিসে বার বার ব্যক্তি বিশেষকে দিয়ে পাঠানো হয়েছে। সিএজি লিখেছে, অনলাইন সিস্টেমস তৈরি হয়ে যাওয়ার পর ‘ম্যানুয়াল ইনটারভেনশন’ অনিয়ম। মাঝপথে নথি বা ওএমআর শিটে যে বদল করা হয়নি, এমন কোনও নিশ্চয়তা নেই। 

সিএজির দাবি, প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার যে নম্বর চূড়ান্ত তালিকায় প্রকাশিত হয়েছে, তার সঙ্গে সিস্টেমে লিখে রাখা নম্বর মেলেনি। ৭২৪৭ জন পরীক্ষার্থীর প্যানেলের নমুনা অডিটে ৫ জন এমন প্রার্থীর হদিশ মিলেছে, যাঁরা লিখিত পরীক্ষায় ০.৫ থেকে ৫.৫ নম্বর পেয়েও চূড়ান্ত প্যানেলে ঠাঁই পেয়েছেন। এঁদের এক জন শেষ পর্যন্ত চাকরিও পেয়েছেন। মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা যেখানে ১৮-২০ লক্ষ, সেখানে সব মিলিয়ে কত পরীক্ষার্থীর ক্ষেত্রে এমন নম্বর অদলবদল হয়েছে, তা সহজেই অনুমেয়। সিএজি লিখেছে, সিস্টেম, চূড়ান্ত প্যানেল এবং অডিটের নম্বর আলাদা আলাদা থাকাতেই প্রমাণিত হয়েছে, বার বার অনলাইন সিস্টেমে ঢুকে তা বদল করা হয়েছে।

সিএজি রিপোর্টে বলা হয়েছে, এসএসসির অনলাইন সিস্টেমে দশম সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় শিক্ষাগত যোগ্যতার জন্য প্রাপ্ত নম্বর অনেক ক্ষেত্রেই কমিয়ে-বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। উত্তরবঙ্গের ১০২০৫৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১১০২১ জনকে এ বাবদ দেওয়া নম্বরের ক্ষেত্রে গরমিল ধরা পড়েছে সিএজির অডিটে। ৬৫৬১ জনের নম্বর বাড়ানো ছিল, ৪৪৬০ জনের নম্বর কমানো ছিল। আবার একাদশতম সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় এমন ২২৬৪ প্রার্থীর খোঁজ মিলেছে, যাঁদের শিক্ষাগত যোগ্যতার নম্বর ১ থেকে ২৪ পর্যন্ত বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল। শুধু তাই নয়, একাদশতম পরীক্ষায় ৭ জন সহকারী শিক্ষকের ‘কাস্ট’ পর্যন্ত চূড়ান্ত প্যানেলে পরিবর্তন করা হয়েছে বলে নমুনা পরীক্ষায় জেনেছে সিএজি। 
রিপোর্ট প্রকাশের আগে সিএজি সাধারণত কোনও সুপারিশ করে না। কিন্তু এ ক্ষেত্রে প্রথা ভেঙে রাজ্যকে সতর্ক করা হয়েছিল। সংস্থার এক কর্তার কথায়, ‘‘এসএসসি’র সঙ্গে লাখ লাখ পরীক্ষার্থীর ভাগ্য জড়িয়ে। তাই সরকারকে সতর্ক করা হয়েছিল। কিন্তু সরকার কিছুই করেনি।’’ 
শিক্ষক নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ প্রসঙ্গে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘স্কুল সার্ভিস কমিশন একটি স্বশাসিত সংস্থা। তাদের বিষয়ে আমি সরাসরি কোনও মন্তব্য করতে পারি না। তা ছাড়া, সিএজি কী রিপোর্ট দিয়েছে, সে ব্যাপারেও আমি অবহিত নই। ফলে কিছু বলব না। আর স্কুল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান সৌমিত্র সরকারের বক্তব্য, ‘‘আমি গত ১ জানুয়ারি দায়িত্ব নিয়েছি। আমার আমলে এ সব কিছু হয়নি। আগে কে কী করেছে, কী হয়েছে সে ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করব না।’’

আরো পড়ুন

‘শহরের হুক্কা বার বন্ধ করা যাবে না’

By Dibyendu - 24th January, 2023

কলকাতা এবং বিধাননগর এলাকায় কোনও হুক্কা বার বন্ধ করা যাবে না— জানিয়ে দিল কলকাতা হাই কোর্ট। আরো পড়ুন

পঞ্চায়েত ভোটের আগে সচিব পর্যায়ে রদবদল!

By Dibyendu - 17th January, 2023

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের বেশ কয়েকটি দফতরের সচিব পর্যায়ে রদবদল ঘটানো হয়েছে। আরো পড়ুন

জঙ্গিপুরের তৃণমূল বিধায়ক জাকির হোসেনের বাড়ি থেকে মিলল কোটি কোটি টাকা!

By Dibyendu - 12th January, 2023

কুবেরের ধন মিলল রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা জঙ্গিপুরের তৃণমূল বিধায়ক জাকির হোসেনের বিড়ি কারখানা, গুদাম এবং চালকল থেকে। আরো পড়ুন

যোশীমঠে গৃহহীনদের আর্থিক ক্ষতিপূরণের ঘোষণা

By Dibyendu - 11th January, 2023

যত সময় গড়াচ্ছে ততই বিপদ বাড়ছে উত্তরাখণ্ডের (Uttarakhand) যোশীমঠে (Joshimath)। আরো পড়ুন

শীতের আমেজ কমছে রাজ্যে!

By Dibyendu - 22nd December, 2022

শুক্র, শনি, রবি, সোম এই চারদিনে চার ডিগ্রি পর্যন্ত বাড়তে পারে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। আরো পড়ুন

রাস্তায় স্ত্রীর মাথা থেঁতো করে খুন স্বামীর

By Dibyendu - 21st December, 2022

রাস্তায় স্ত্রীকে ইট দিয়ে মাথা থেঁতলে খুন করে সোজা পুলিশের কাছে গিয়ে ধরা দিলেন স্বামী। আরো পড়ুন

হাঁসখালিকাণ্ডে অর্থসাহায্য পেল ধর্ষিতার পরিবার

By Dibyendu - 20th December, 2022

যে সংস্থার নজরদারিতে ধর্ষিতার পরিবারের হাতে আর্থিক সাহায্য পৌঁছনোর কথা, তারাই শুনানি পিছোনোর আবেদন করছে বারবার। আরো পড়ুন

লালন শেখের মৃত্যু-তদন্তে বগটুই গ্রামে সিআইডি

By Dibyendu - 16th December, 2022

রামপুরহাটে সিবিআইয়ের অস্থায়ী শিবিরে গিয়ে বৃহস্পতিবার থেকেই লালন শেখের রহস্য-মৃত্যুর তদন্ত শুরু করেছে সিআইডি। আরো পড়ুন

ট্যাংরার প্লাস্টিকের কারখানায় বিধ্বংসী আগুন, হতাহতের খবর নেই

By Aparna Sen Gupta - 12th December, 2022

ট্যাংরায় একটি প্লাস্টিক কারখানায় আগুন লেগে তা দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে। আরো পড়ুন

SSC SCAM: চার্জশিটে পার্থর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ ইডি-র

By Dibyendu - 8th December, 2022

টাকার বিনিময়ে বেসরকারি বিএড এবং প্রাইমারি শিক্ষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (ডিএলএড)-কে ছাড়পত্র দেওয়ার ব্যবস্থা করে দিতেন রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। আরো পড়ুন

News Hut
www.webhub.academy